একের পর এক গবাদিপশু চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ালো এলাকায়

0
35

ইসলামপুর: একের পর এক গবাদিপশু চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ালো এলাকায়। ইসলামপুর থানার গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় শনিবার গবাদিপশু সহ এক দুষ্কৃতীকে হাতেনাতে ধরে ফেলে এলাকাবাসী। এরপর ওই দুষ্কৃতীকে আটকে রাখা হয়। সেখান থেকে তারা আওয়াজ তোলেন, বাকি গবাদিপশু গুলিকে উদ্ধার করার পাশাপাশি দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার করতে হবে অবিলম্বে।

তা না হলে তারা তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাবেন ধারাবাহিকভাবে। মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে ওই এলাকা থেকে প্রায় দশটি গবাদিপশু চুরি যায় বলে অভিযোগ। ওই এলাকার তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি নুরুদ্দিন বলেন, যতগুলো গবাদি পশু চুরি হয়েছে ততগুলো ফেরত না দিলে তারা তাদের আন্দোলন অব্যাহত রাখবেন। গোবিন্দপুর এলাকা থেকে গবাদি পশু গুলো চুরি করে কমলাগাঁও সুজালি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তাঁর।

খবর পেয়ে এলাকায় পুলিশ গিয়ে পৌঁছায় এবং যারা ওই দুষ্কৃতীকে আটকে রেখেছিল তাদের হাত থেকে উদ্ধার করে তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়। এলাকার বাসিন্দা আনন্দ আনন্দ তরফদার বলেন, এই ঘটনা বহুদিন ধরে এখানে চলছে। অবিলম্বে এর যথাযথ তদন্ত করে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক। পাশাপাশি গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য মহম্মদ তারিক বলেন, গবাদি পশু চুরি বেড়েছে দেখে তারা ভদ্রকালীতে রাত জেগে পাহারার ব্যবস্থা করেছেন।

সেই মতন গতকাল রাতে যখন তারা সেরির আয়োজন করছিলেন তখন খবর শুনে ছুটে এসে হাতেনাতে ওই দুষ্কৃতী  সহ গবাদি পশুকে উদ্ধার করেন তারা। এমনকি সুজালির এক জায়গায় গবাদি পশু গুলো রাখা আছে বলে খবর পেয়েছেন তিনি।যদি গবাদি পশু গুলো কারোর আশ্রয়ে রাখা থাকে তবে দুস্কৃতীরা কোথায় গেল তা জানতে চাইছেন  তারা।

এবং অবিলম্বে এর রহস্য উদঘাটনের জন্য পুলিশের কাছে দাবি জানানোর কথাও জানান তিনি। ইসলামপুর পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার শচীন মক্কার বলেন, ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এবং সমস্ত ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ অবিলম্বে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলেও তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here