সুশান্ত নন্দীর কবিতা “পরিযায়ী ভাইরাস”

0
87

পরিযায়ী ভাইরাস
সুশান্ত নন্দী

লক আউট হয়ে গেছে গোটা দেশ
কার্ফিউ অর্ধেক পৃথিবী জুড়ে
কোন এক বিমূর্ত ভিনদেশী অতিথির সঙ্গে আইসোলেশনে সহবাস করছে অজস্র যন্ত্রণা
এই মুহূর্তে কোয়ারেন্টাইনে শুয়ে আছে কতগুলো প্রিয় মুখ
আমার… তোমার… সবার…

#

গোটা দেশ কাঁদছে এখন
নিঃশ্বাসে মিশছে বিষ
পৃথিবী এখন গভীর সংকটে
মানুষ আজ বড় বেশি অসহায়
মানুষ আজ বড় একা…
মানুষের আজ গভীর অসুখ

#

অদৃশ্য বাতাসে হেঁটে বেড়াচ্ছে পরিযায়ী ভাইরাস
প্রতিমুহূর্তে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে গুণিতকে
দূরত্বে দাঁড়িয়ে রয়েছে অজস্র স্নেহমুখ
প্রেম বন্ধুতা ভালোবাসা

#

এই বন্দী শিবিরে আমি নুন ভাতেও রাজি আমাকে কেড়ে নিওনা
আমার সন্তানের দুধটুকু থাক শুধু
আর পথ চেয়ে বসে থাকা মানুষটার জন্য এয়োতির চিহ্নটুকু
আর কিছুদিন একসাথে থেকে যেতে চাই

#

অজস্র মানুষ আজ চিরঘুমে
গণকবরে
এভাবে চলে যেতে চাইনা
যেখানে শব বাহক নেই
শব দাহ করার মানুষ নেই

শ্ব

তুমি দেখে যাও কিভাবে কাঁদছে মানুষ কিভাবে বাঁচছে মানুষ
ঈশ্বর দেখে যাও শুধু…
মুছে দিয়ে যাও এই অন্ধকারের সফরনামা

#

এই প্রথম কারফিউ দেখা শহরে
এই প্রথম সাট ডাউন দেখা দেশে
কোনো সন্ত্রাস নেই
নেই বারুদের গন্ধ
অথচ আতঙ্ক তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে
প্রতিটি মানুষকে

#

আজ অনেক সভ্যতার কথা মনে পড়ছে ধ্বংসের চিহ্ন রেখে যাওয়া
মেসোপটেমিয়া হরপ্পা মহেঞ্জোদারো…
আমি তোমাকে বলছি পৃথিবী
মহামারী তুলে নাও
তুমি ভালো থেকো

#

এই দেখো মানুষের হাতে তৈরি হচ্ছে মৃত্যু ভাইরাস
এক অদৃশ্য সাইলেন্ট কিলার
আমরাই তো হাজারো দূষণের কারিগর আমাদের জন্যই আমরা কফিনবন্দি হচ্ছি
তবুও…

#

তুমি সেরে ওঠো পৃথিবী
আজ আমার প্রণতি গ্রহণ করো
আমিও সবুজ ফেরাতে পারি
তুমিও আর একবার ফেরাও সভ্যতা
এ ক বা র

#

প্রতিটি গীর্জা দেবালয় মসজিদ আর গুরুদুয়ারায়
একসাথে উচ্চারিত হোক বেদমন্ত্র
বুদ্ধ স্তুতি আজান আর প্রার্থনা পৃথিবী শুধু তোমার জন্য
শুধু তোমার জন্য…

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here