সংকট এলে তার মোকাবিলায় খাদ্য সামগ্রী মজুদ করতে প্রস্তুত অনেকেই

0
49

ইসলামপুর: হুজুগে বাঙালি করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে এখন বাড়িতে কয়েক মাসের প্রয়োজনীয় খাবার সামগ্রী মজুদ করতে মেতেছে। সম্প্রতি শহর জুড়ে শুরু হয়েছে নতুন এই পর্ব। যে কোনও মুহূর্তে দোকান পাট বন্ধ হয়ে যেতে পারে এবং শুরু হতে পারে ক্রাইসিস। আচমকা এই খবর চাউর হতেই এখন বিশেষ করে চাল, ডাল থেকে শুরু করে অত্যাবশ্যক জিনিস পত্র বাড়িতে এনে জড়ো করছে অনেকেই।

স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ মনে করছেন, এই ভাইরাসের জেরে একাধিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ। এর প্রাদুর্ভাব চরম আকার নিলে তখন হয়তো আতঙ্কে ব্যবসায়ীরাও দোকান পাট বন্ধ করে দেবে। এমনটা হলে ঘরের ভাঁড়ারে টান পড়বে।  আর তাই বেশ কয়েকদিন ধরে শুরু হয়ে গেছে শুকনো খাবার সংগ্রহ অভিযান।

কেউ দুই মাসের আবার কেউবা তিন মাসের জন্য রান্নার সামগ্রী অর্থাৎ চাল-ডাল-তেল-লবণ আলু এসব কিনে বাড়ির ভাড়ার ঘরে গুদামজাত করেছেন। সেইসঙ্গে প্রয়োজনীয় গ্যাসও জোগাড় করে ফেলছেন অনেকেই। এর জেরে বিশেষ করে মুদি দোকানে বিক্রি যেমন বেড়েছে তেমনি অনেক পণ্যই প্রায় নিঃশেষ। তবে একসঙ্গে বেশ কয়েক মাসের পণ্য তথা খাদ্য সামগ্রী জোগাড় করতে মধ্যবিত্ত বাঙালিকে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে।

তবুও যদি আগামীতে সংকট চলে আসে তবে তা মোকাবেলা করার জন্য যাতে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বিপাকে পড়তে না হয় তার জন্য প্রস্তুত অনেকেই। ইসলামপুরের সাধারণ মানুষের কিছু অংশ জানান, খাদ্যদ্রব্যের যাতে কোন রকম ঘাটতি না হয় তার জন্য প্রায় দুমাসের জন্য চাল সহ অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য অনেকেই বাড়িতে মজুদ করেছেন। মানুষের মধ্যে একটা আতঙ্ক কাজ করছে। তাই তার জন্য এভাবেই প্রস্তুত হচ্ছেন তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here