শিক্ষা ব্যবস্থাকে উন্নত করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কাজ করছেন শিক্ষামন্ত্রীসহ মন্ত্রী পরিষদের অন্যান্য সদস্যরা

0
66

সুশান্ত নন্দী, ইসলামপুর: শিক্ষা ব্যবস্থাকে উন্নত করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কাজ করছেন শিক্ষামন্ত্রীসহ মন্ত্রী পরিষদের অন্যান্য সদস্যরা। না এটি অবশ্য দেশের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার কথা বলা হচ্ছে না। প্রতিটি শিক্ষাবর্ষের শুরুতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দেখা যাবে এই চিত্র।  বিদ্যালয়গুলিতে মন্ত্রিসভার সদস্যরা অনেক কার্য পরিচালনা করে বিদ্যালয়ের পঠন পাঠন সহ  বিভিন্ন বিষয়কে এগিয়ে নিয়ে চলে এবং শিক্ষক-শিক্ষিকাদের পাশে থেকে ওরাও বিদ্যালয়ের সামগ্রিক উন্নয়ন নিয়ে মতামত পেশ করে এবং নিজেদের দায়িত্ব অনুযায়ী কাজ করে যায়।

এমনিভাবেই সাজানো রয়েছে বিদ্যালয়ের মন্ত্রীপরিষদ। অর্থাৎ ছাত্র সংসদ। শিক্ষাবর্ষের শুরুতেই ছাত্র সংসদ তৈরীর জন্য সবচেয়ে উদ্যমী বিদ্যালয়ের এমন একজনকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করা হয়। এর পর প্রধানমন্ত্রী শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সঙ্গে প্রয়োজনে পরামর্শ করে গঠন করেন তাঁর মন্ত্রিসভার অন্যান্য মন্ত্রী। যেমন খাদ্য মন্ত্রী, পরিবেশ মন্ত্রী, সাংস্কৃতিক মন্ত্রী এবং শিক্ষা মন্ত্রী ও ক্রীড়া মন্ত্রী। মন্ত্রীদের অধীনে রয়েছে পাঁচ জন  করে সদস্য।

সার্বিক বিষয়গুলো দেখাশোনার দায়িত্বে থাকেন প্রধান মন্ত্রী। কোন মন্ত্রী কি কাজ করছে এবং কি করা উচিত সে বিষয়ে প্রতি মাসেই মন্ত্রিসভার বৈঠকে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয় প্রধান মন্ত্রী। বিদ্যালয়ের পঠন পাঠনের বিষয়গুলি নজরে রাখে শিক্ষা মন্ত্রী। অর্থাৎ কোনও পড়ুয়ার অসুবিধা হচ্ছে কিনা এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করার জন্য সে ভূমিকা পালন করে। বিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সম্পর্কিত যেকোন বিষয়  নিয়ে শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয় সাংস্কৃতিক মন্ত্রী।

পরিবেশ মন্ত্রী বিদ্যালয়ের পরিবেশ রক্ষায় কাজ করে এবং সবসময় যাতে বিদ্যালয় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকে সে বিষয়ে নজর রাখে। ক্রীড়া মন্ত্রী বিদ্যালয়ের ক্রীড়া চর্চার বিষয় গুলি দেখে। এমনি ভাবেই এক বছরের জন্য নির্বাচিত হয় মন্ত্রিসভা। ইসলামপুর দক্ষিণ চক্রের হাঁস কুন্ডা প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার মতনই সেই আদলে গঠিত হয়। ছাত্র সংসদ পরিচালিত প্রত্যেকটি মন্ত্রী এবং সদস্যদের নিজ দায়িত্ব বুঝিয়ে দেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা। সে কর্মসূচি ছিল বেশ সাড়া জাগানো।

প্রধান শিক্ষক সহকারী জানান  মন্ত্রিসভাকে আরো চাঙ্গা করার জন্য এবং ছাত্র সংসদ কে উজ্জীবিত করার জন্যই তাদের ছিল এদিনের এই প্রয়াস। বিদ্যালয়ের শিক্ষাব্যবস্থাকে এবং সামগ্রিক বিষয়কে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে  ছাত্র সংসদের  যথেষ্ট ভূমিকা রয়েছে বলে তিনি মনে করেন। এই উদ্যোগকে প্রশংসা করেছেন বিদ্যালয় পরিদর্শক বেল্লাল হোসেন। তাদের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন তিনি এবং একাধিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here