পুরভোট প্রচারে অসুবিধে,কমিশনের দ্বারস্থ মুকুল রায়

0
62

কলকাতাঃ মাইক্রফোন ছাড়া পুরভোটের প্রচার কিভাবে সম্ভব এই প্রশ্ন তুললেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। বৃহস্পতিবার বিজেপির জাতীয় পরিষদের সদস্য এই প্রশ্ন তুলে রাজ্য নির্বাচন কমিশনারের দ্বারস্থ হন। মুকুল রায় বলেন বিজেপি একবারও পুরভোট পিছনোর দাবি করছে না, কিন্তু পুরো মার্চ মাস জুড়ে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা চলবে। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ঐসময় মাইক্রফোনে প্রচার করতে পারবে না বিজেপি সহ সমস্ত বিরোধী দলগুলি। তাই পুরভোটে যাতে বিরোধীরা প্রচারের সময় পায় সেইদাবি নিয়েই রাজ্য বিজেপি রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দারস্থ হয়েছে বলে জানান মুকুল রায়। তার আরও অভিযোগ রাজ্য সরকার ইচ্ছে করেই পুরভোটের নির্ঘণ্ট এপ্রিলের সামনের দিকে করতে চাইছে।

বিরোধীদের প্রচার আটকাতেই রাজ্যের শাসক দলের এমন কৌশল বলে অভিযোগ করেন মুকুল রায়। পাশাপাশি পুরভোটের সময় যাতে পরীক্ষারর্থীদের কোন রকম অসুবিধে নাহয় তার দাবিও জানান মুকুল রায়। তবে বিজেপি যেকোন দিন পুরভোটের জন্য প্রস্তুত। সাংগঠনিক ভাবে তৃণমূলের সঙ্গে লড়াই করার জন্য বিজেপি তৈরি বলে এদিন রাজ্য নির্বাচন কমিশন দফতরে জানান তিনি। বিজেপি ভোটের প্রচারের সময় পেলে ভালোফল করবে বলেও দাবি করেন বিজেপির জাতীয় পরিষদের সদস্য। পাশাপাশি আসন্ন পুরভোট ব্যালোটে না ইভিএমে হবে তানিয়ে মাথা ঘামাচ্ছে না বিজেপি। তিনি বলেন, ব্যালোটে ভোট হলে বাংলাকে পিছিয়ে দেওয়া হবে। আর তাতে আমার কিছু বলার নেই। আমি শুধু বলছি মহারাষ্ট্র,ঝাড়খন্ড সব জায়গায় ইভিএমএ ভোট হয়েছে। বিরোধীরা ভালো ফল করেছে বলে রাজ্যের শাসক দলকে কটাক্ষ করেন মুকুল রায়। ১২ এপ্রিল এই দুই পুরসভায় ভোট করতে চাইছে রাজ্য।
আর অন্যদিকে বাদবাকি পুরসভাগুলির ভোট আগামী ২৬ কিংবা ২৭ এপ্রিল ভোট করতে চাইছে সরকার বলে নবান্ন সূত্রে খবর। পুরভোট সম্পূর্ন করতে ইতিমধ্যেই ময়দানে নেমে পরেছে কমিশনের কর্তারা। বুধবার কমিশন দফতরে উত্তরচব্বিশ পরগনা ও হাওড়া জেলার জেলাশাসকের সঙ্গে বৈঠক করেছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতার নির্বাচনী আধিকারীকদের সঙ্গেও কলকাতার পুরনির্বাচন নিয়ে গতকাল বৈঠক করেছেন রাজ্য নির্বাচন কমিশনের আধিকারীকরা। পুরনির্বাচন নিয়ে যখন রাজ্য রাজনীতির মাটি ক্রমশ্যই উত্তপ্ত হচ্ছে, সেইসময় ভোট পিছানোর দাবিতে দুপুরে কমিশনের দারস্থ হচ্ছে বিজেপি।

রাজনৈতিক মহলের মত তবে কি পুরভোটে প্রস্তুত নয় বিজেপি। যারজন্যই পুরভোট পিছনের দাবিতে কমিশনের দারস্থ হচ্ছেন বিজেপি নেতারা। বিজেপি ভালো করেই বুঝতে পারছে এপ্রিলে পুরভোট হলে মাইক্রোফোনে তারা প্রচারের যথেষ্ট সময় পাবে না। তাই সুকৌশলে পুরভোট পিছিয়ে দেবার দাবিতে এদিন কমিশনের দারস্থ হলো রাজ্য বিজেপি। যদিও মুকুল রায় বলেন, আমরা পুরভোট পিছিয়ে দিতে একেবারেই বলছি না। শুধু বলছি বিরোধী দলগুলি যাতে প্রচারের সুপুরভতেযোগ পায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here