যান্ত্রিক উপায়ে ধান চাষ শুরু হেমতাবাদে

0
60

হেমতাবাদঃ কম খরচে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি করতে কৃষি দপ্তরের উদ্যোগে যান্ত্রিক উপায়ে ধান চাষ শুরু হেমতাবাদে। ইতিমধ্যে বাঙ্গালবাড়ি গ্রামপঞ্চায়েতের দধিকোটবাড়ি গ্রামের কৃষকদের ১০০ বিঘা জমিতে শুরু হল প্যাডি প্ল্যানটেশন মেশিনের মাধ্যমে ধানের চারা রোপন। পঞ্চাশ শতাংশ ছাড় দিয়ে এই প্যাডি প্ল্যানটেশন মেশিন তুলে দেওয়া হচ্ছে ধানচাষীদের। সাথে দেওয়া হচ্ছে বিনামূল্যের ধানের বীজ ও অন্যান্য সরঞ্জাম।

জেলার হেমতাবাদ ব্লকের কৃষকেরা এখন এই প্যাডি প্ল্যানটেশন মেশিনের সাহায্যেই তাদের জমিতে ধানের চারা রোপন এবং বীজ থেকে ধান গাছের চারা তৈরি করছেন। এরফলে একদিকে যেমন সময় কম লাগছে তার পাশাপাশি চাষের খরচও অনেকটাই কমে যাচ্ছে।  শুধু তাই নয় ধানের ফলনও ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে বলে ব্লক কৃষি প্রযুক্তি সহায়ক শুভজিৎ দাসের দাবি।

কৃষি প্রধান উত্তর দিনাজপুর জেলায় ধান চাষীরা প্রথমে বীজতলা করে সেই ধানের চারা তুলে নিয়ে গিয়ে একটি একটি করে ধানের চারা রোপন করেন। এতে শ্রমিক ও সময় যেমন বেশি লাগে তেমনি চাষের খরচও বেড়ে যায়। প্রাচীন এই ধান চাষের পরিবর্তন করে  বিপ্লব এনেছে  কৃষি দপ্তর।

হেমতাবাদ ব্লকের কৃষক সোলেমান আলি, গিয়াসউদ্দিন আহমদেরা জানিয়েছেন, চাষের কাজে শ্রমিক সমস্যা দিনে দিনে প্রকট আকার নিচ্ছে। বেশি মজুরি দিয়ে শ্রমিক নিয়োগ করে দীর্ঘকাল পরে ঘরে ফসল তুলতে হয়। এরফলে চাষের খরচ বেশি পড়ে যায়। সেভাবে লাভ হয়না কৃষকদের। কিন্তু রাজ্য সরকারের সহায়তায় প্যাডি প্ল্যানটেশন মেশিনের মাধ্যমে জমিতে ধানের চারা রোপন করে কম খরচে  কম সময়ে বেশি ফলন পাবেন তারা। ফলে আগের চাইতে অনেক বেশি লাভের মুখ দেখতে পাবেন তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here