বক্স অফিসে সফল নয় নারীকেন্দ্রিক ছবি

0
60

দেবলীনা ব্যানার্জী : কেন্দ্রীয় চরিত্রে বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রী,  ছবির বিষয়বস্তুও মনে দাগ কাটার মত, পরিচালকেরাও নতুন প্রজন্মের প্রতিভাবান মুখ। তবু বক্স অফিসে সাফল্যের মুখ অধরা। সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত দুটি ছবির বক্স অফিস কালেকশন এমনই নানা প্রশ্ন উসকে দিচ্ছে। কথা হচ্ছে দীপিকা পাড়ুকোন অভিনীত ‘ছপাক’ ও কঙ্গনা রানাওয়াতের ‘পঙ্গা’ ছবির নিরিখে। দূটি ছবিই নারীকেন্দ্রিক। ছবি দুটি নিয়ে মুক্তির আগে থেকেই প্রচন্ড হাইপ ছিল।

তার ওপর দীপিকা ও কঙ্গনার মত শক্তিশালী অভিনেত্রীরা মুখ্য চরিত্রে। সমালোচক ও দর্শকদের প্রশংসা জুটলেও লাভের মুখ তেমনভাবে দেখতে পেল না এই দুটি ছবি। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন জাগছে তাহলে কি নারীকেন্দ্রিক ছবির বাজার এখনো তৈরি হয় নি? তাই বা কেনো! এর আগেই  আলিয়াকে মুখ্য চরিত্রে নিয়ে মেঘনা গুলজারের ‘রাজি’ সফল হয়েছিল। বিদ্যা বালানের ‘কাহানি’ বা ‘ডার্টি পিকচার’ চরম সফল ছবি। বিয়ের পর রানি মুখার্জির কামব্যাক ছবি ‘ মর্দানি’ ও সফল।

‘মর্দানি টু’ নিয়ে আবার ফিরছেন রানি। তাহলে ‘ছপাক’ ও ‘পঙ্গা’র ক্ষেত্রে এমন বিরূপতা কেনো? মেঘনা গুলজার পরিচালিত দীপিকা পাড়ুকোন অভিনীত ‘ছপাক’-এর বক্স অফিসে প্রথম দিনের রোজগার ছিল প্রায় ৫ কোটি টাকা। অন্যদিকে  কঙ্গনার অভিনয় মনে দাগ কাটলেও বক্সঅফিসের অঙ্কে শুরুটা মোটেও ভাল নয় ‘পঙ্গা’-র। প্রথম দিনে ওই ছবির আয় ছপাকের প্রথম দিনের আয়ের প্রায় অর্ধেক।

দীপিকার ‘ছপাক’ এর সাথে মুক্তি পেয়েছিল অজয় দেবগণ -কাজল-সঈফ আলি খান অভিনীত ‘তানাজি’। সে ছবি ইতিমধ্যেই ব্লকবাস্টার হিট। ব্যবসার নিরিখে তানাজির ধারেকাছে পৌঁছাতে পারে নি ছপাক। আবার কঙ্গনার ‘পঙ্গা’র সাথে মুক্তি পাওয়া ছবি ‘স্ট্রিট ডান্সার’ কিন্তু তুলনামূলক ভাবে ভাল ব্যবসা করেছে। বরুণ-শ্রদ্ধা অভিনীত ওই ছবির প্রথম দিনের পর আয় ১০ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা। এটারও ধারেকাছে নেই কঙ্গনার ছবির বক্স অফিস কালেকশন।

তাহলে কি এই দুই ছবির বিষয় জোরালো ছিল না? কি ছিল এই দুটি ছবিতে? দু’টি ছবিই আদ্যন্ত নারীকেন্দ্রিক ছবি। অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগরওয়ালের গল্প শুনিয়েছিল ‘ছপাক’। অন্য দিকে ‘পঙ্গা’এক মহিলা কবাডি খেলোয়াড়ের হার-জিতের গল্প বলে। দুই ছবির প্রধান চরিত্রই মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা দুই মেয়ে। অস্তিত্ব প্রমাণের তাগিদে যারা মুখোমুখি হয় চ্যালেঞ্জের। দুই ছবিতেই তথাকথিত হিরো নেই। কঙ্গনা এবং দীপিকাই নিয়েছেন হিরোর জায়গা।

‘পঙ্গা’ এবং ‘ছপাক’-এর পরিচালকও মহিলা। ‘পঙ্গা-র পরিচালক অশ্বিনী আইয়ার তিওয়ারি, অন্য দিকে ‘ছপাক’-এর পরিচালক মেঘনা গুলজার।আবার ছপাক মুক্তির আগে দীপিকা পাড়ুকোনের জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার ঘটনা নিয়ে যখন গোটা সোশ্যাল মিডিয়া দুই ভাগ হয়ে গিয়েছিল তখন দীপিকার পাশে নামজাদা কিছু বলি তারকা দাঁড়ালেও দীপিকার উল্টো সুরেই কথা বলেছিলেন বলি টাউনের ‘কুইন’ কঙ্গনা। তাই ছপাক মুক্তির আগে কিছু বিতর্ক থাকলেও পঙ্গার ক্ষেত্রে কোনো বিতর্ক ছিল না। তবে পঙ্গা মুক্তি পেয়েছে সবেমাত্র এক সপ্তাহ।  দেখা যাক আগামী দিনে এ ছবির ব্যবসা বাড়ে কিনা!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here