বকেয়া না পেয়ে বন্ধ নিশ্চয়যান পরিষেবা, বিপাকে প্রসূতি মায়েরা

0
33

মালবাজার: রাজ্য সরকার গর্ভবতী মায়েদের হাসপাতালে নিয়ে আসা ও প্রসবের পর বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার জন্য নিশ্চয়যান পরিষেবা ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে। গোটা রাজ্য জুড়ে হাসপাতাল গুলিতে এই ব্যবস্থা গড়ে তুলতে বেসরকারি এম্বুলেন্স ব্যবহার করা হয়ে আসছে। সরকারি অর্থের বিনিময়ে এই সব এম্বুলেন্স চালক ও মালিকরা পরিষেবা দিয়ে আসছে। গত ১১ মাস ধরে এইসব এম্বুলেন্স চালকরা তাদের প্রাপ্য টাকা পাচ্ছেন না।

সংসার চালানো কষ্টকর হয়ে পড়েছে। বাধ্য হয়ে অল বেঙ্গল নিশ্চয়যান অপারেটর ইউনিয়নের ডাকে মঙ্গলবার থেকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য নিশ্চয় যান পরিষেবা বন্ধ করল অপারেটররা। এতেই বিপাকে পড়েছে প্রসূতি মায়েরা ও তাদের পরিবার। কোলে সদ্যোজাতকে নিয়ে হাসপাতালের দরজায় বসে আছে। কেউ কেউ অন্য গাড়ি ভাড়া করে বাড়ি ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন। এদিন মাল হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেল ক্রান্তি থেকে প্রসবের জন্য হাসপাতালে এসেছিলেন আমিনা বেগম।

মালবাজার শহর থেকে ৪০ কিমি দুরে বাড়ি।   গত ৩ জানুয়ারি সন্তানের জন্ম দেন। আজ ছুটি দিয়েছে। নিশ্চয় যান না পেয়ে বিকল্প ব্যবস্থার জন্য বাচ্চা কোলে নিয়ে হাসপাতালের দরজায় বসে আছেন। কখন বাড়ি যাবেন ঠিক নেই। এইরকম ভাবে বেতগুড়ি, বাগরাকোট, কুমলাই বিভিন্ন চাবাগান বেশ কয়েকজন মা আজ ছুটি পান। কিন্তু, বাড়ি ফিরতে সমস্যায় পড়েছেন।  একই ভাবে সমস্যায় পড়েছে মঙ্গলবাড়ি ও শুলকাপাড়া হাসপাতালের প্রসুতি মায়েরা ও তাদের পরিবার।

এনিয়ে মাল ও মঙ্গলবাড়ি হাস্পাতালের নিশ্চয় যান অপারেটর জগদীশ রায় ও আকবর আলি বলেন, ১১ মাস হয়ে গেল বকেয়া বিল পাচ্ছি না। যান চালানো অসম্ভব হয়ে পড়েছে। বাধ্য হয়ে আমরা এই পথে নেমেছি। আমাদের বিলের ব্যবস্থা হলেই যান চালাব। এনিয়ে জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক জানান, বিষয়টি উপর মহলে জানান হয়েছে। দ্রুতই সমস্যা মিটে যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here