এই শীতে পুরনো জামা কাপড়ই ভরসা হত দরিদ্র মানুষগুলোর

0
37

ইসলামপুর: কি শীত কি গ্রীষ্ম!  সাধারণ পোশাক কিংবা গরম পোশাক যাই হোক না কেন, কোনটাই নতুন কিনে পড়ার সামর্থ্য নেই তাদের।  তাদেরকে সব সময় মানুষের ব্যবহার করা একটু ছেঁড়াফাটা পুরনো জামা কাপড়ই পড়তে হয়। কারণ নতুন জামাকাপড় কেনাকাটা করা যাদের সাধ্যের মধ্যে নেই তাদের পুরনো ফাটা কোম্পানির জামাকাপড় কিংবা শীতবস্ত্ কিনে লজ্জা নিবারণ করতে হয়।

কিংবা তীব্র শীতের প্রকোপ থেকে বাঁচতে হয়। এমনি অনেক ছোট ছোট বাজার গড়ে উঠেছে ইসলামপুরের আনাচে-কানাচে। এই তীব্র শীতে সেখানে স্বল্প মূল্যে বিক্রি হচ্ছে শীতের পোশাক। হ্যাঁ তা অবশ্যই মানুষের ব্যবহার করা ছেঁড়াফাটা।  তা হলেও এই শীতের মুহূর্তেই অনেককেই কেনাকাটা করতে দেখা গেছে সেখানে। যারা কেনাকাটা করতে এসেছেন তাদের মধ্যে অনেকেই ভিক্ষাজীবি কিংবা কুলি মজুর।

সমাজের দারিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী অধিকাংশ মানুষ রয়েছেন ওই ভিড়ে। পঞ্চাশ টাকার মধ্যে শীতবস্ত্র বিক্রয় হচ্ছে সেখানে। পাওয়া যাচ্ছে কোর্টও। তাই যাদের স্বপ্ন ছিল  নামি দামি জ্যাকেট ব্যবহারের ।সেসব নতুন নয় বরং পুরাতন। তাতেই বা কি! সে স্বপ্ন তারা একটু অন্যভাবে পূরণ করছেন।

কথা হচ্ছিল শীতের পোশাক কিনতে আসা দীলিপ বাঁশ ফোঁড় এবং রফিকদের সঙ্গে। তারা জানান, প্রতিবছর বাড়ির সদস্যদের জন্য তাদের আয়ের ন্যূনতম অংশ থেকে এসব কেনাকাটা করেন তিনি। কারণ নতুন কাপড় কেনার মতন আর্থিক সংগতি তার নেই। এমনকি তার মত অনেকেরই নেই। আর তাই বিভিন্ন এলাকায় এলাকায় গড়ে উঠেছে এ ধরনের ফাটা কোম্পানির বাজার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here