পেট্রাপোলে পেঁয়াজ বোঝাই শতাধিক ট্রাক আটকা

0
495
হাবিবুর রহমান, ঢাকা: বেনাপোল বন্দর দিয়ে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে ভারত সরকার। ফলে সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে দেশের প্রধান এই স্থলবন্দর দিয়ে কোনো ধরনের পেঁয়াজ আমদানি হয়নি।তবে বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ওপারে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে দাঁড়িয়ে আছে শতাধিক পেঁয়াজ বোঝাই ট্রাক।ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেনাপোলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।
সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে বেনাপোল বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিপ্রতি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১০ টাকায়। এ বিষয়ে আমদানিকারক হামিদ এন্টারপ্রাইজের মালিক আ. হামিদ জানান, ভারত হঠাৎ করে পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি করায় পেঁয়াজ আমদানি প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। রপ্তানিকারকের কাছে আমাদের অনেক এলসি পড়ে আছে। এখন রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ায় বাধ্য হয়ে এলসি বাতিল করতে হচ্ছে।
পেট্রাপোলের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট স্টাফ ওয়েল ফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শ্রী কার্তিক চক্রবর্তী জানান, বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় পেট্রাপোল বন্দরে শতাধিক পেঁয়াজ বোঝাই ট্রাক আটকা পড়েছে। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের হঠাৎ এ ধরনের সিদ্ধান্তে দুই দেশের ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তিনি আরো বলেন, ভারতের কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের নীতিনির্ধারণ বিষয়ক মুখপাত্র সীতাশু কর রপ্তানি নীতির সংশোধন করে তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ হিসেবে পেঁয়াজ রপ্তানি নিষিদ্ধ করেছেন।
পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত সব ধরনের পেঁয়াজ রপ্তানিতে এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। বেনাপোল কাস্টম হাউজের সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা জানান, রোববার থেকে হঠাৎ পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ায় সকাল থেকে কোনো পেঁয়াজের ট্রাক বাংলাদেশে প্রবেশ করেনি। রোববার পর্যন্ত ভারত থেকে প্রতি টন পেঁয়াজ ৮৫৫ মার্কিন ডলারে রপ্তানি হয়ে আসছিল বাংলাদেশে।
গত মাসে ভারত সরকার ৪১০ মার্কিন ডলার থেকে পেঁয়াজের মূল্য বাড়িয়ে ৮৫৫ মার্কিন ডলার করে। আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে হঠাৎ করে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া সমীচীন নয়। ভারত সরকারের হঠাৎ এ ধরনের সিদ্ধান্তে ফলে দুই দেশের ব্যবসায়ীরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here