অগ্নিমূল্য ফল-ফুলের বাজারে, বিশ্বকর্মা ও মনসা পুজোয় বিপাকে সাধারণ মানুষ

0
159

গৌরনাথ চক্রবর্ত্তী, পূর্ব বর্ধমানঃ উৎসবের শুরুতেই বড় ধাক্কা বাঙালির। অগ্নিমূল্য বাজারের জেরে মানিব্যাগ ফাঁকা হওয়ার জের। এক লাফে সবুজ শাক সবজি,ফল ও ফুলের বাজার অনেকটাই চড়ে গিয়েছে। পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ার মুস্থূলীর পাঁচবেড়িয়া বাজারে, কাটোয়া শহরের পুরাতন বাসস্ট্যাণ্ড সংলগ্ন রাস্তার পাশে বাজারে   ও দাঁইহাট শহরের বাজারে গিয়ে দেখা গেল যে আপেল, শশা, কলা, শাকালু, সরবতি, লেবু, পেয়ারা, বাতাবি লেবুর মতো ফলের দাম আগুন।

 

পাশাপাশি বিভিন্ন ফুলের মালার দামও আগুন। সাধারণ শশা ৪০-৫০ টাকা প্রতি কিলো দরে বিক্রি হচ্ছে। আপেল কিলো প্রতি ৮০-১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। আঙুর কিলো প্রতি ১০০-২০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। গাঁদা ফুলের একপিস মালরার দাম ১০টাকা থেকে ১২ টাকা, একপিস পদ্মফুলের দাম ১০ টাকা, রজনীগন্ধা ফুলের মালা একপিস ২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। ফুল ও ফল ব্যবসায়ীদের বক্তব্য, এমনিতেই কোনও পুজো থাকলে মার্কেট একটু চড়া থাকে। তারমধ্যে অনেক কষ্ট করে মাল নিয়ে আসতে হচ্ছে। তাই দাম বাড়ছে।

 

শুধু কলকারখানা নয়। এখন বিশ্বকর্মার পুজো প্রতিটি ঘরে ঘরে। একটি সাইকেল, বাইক, কিংবা ঘরে কোনও  কম্পিউটার, ল্যাপটপ থাকলে এখন বিশ্বকর্মা পুজোয় মাতে বাঙালি। তাই পুজোর প্রস্তুতিতে বাজেটে টান পড়েছে অনেকেরই। বাজার করতে হাতে ছ্যাঁকা লাগলেও ক্রেতাদের বক্তব্য, কী করা যাবে দাম বেশি হলেও পুজোর আয়োজনে বাজার তো করতেই হবে।