চিকিৎসক নিগ্রহের ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ালো ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে, গ্রেফতার এক

0
220

ইসলামপুর: ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে ফের চিকিৎসক ও নার্সদের মারধরের অভিযোগ উঠল রোগীর পরিজনদের বিরুদ্ধে। শনিবার ঘটনায় জখম হন হাসপাতালের ফিজিশিয়ান ড: নূর আলম আনসারী। বর্তমানে হাই ডিফেন্সিভ ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। ঘটনায় জখম হয়েছেন আরও দুই নার্স। ঘটনার জেরে ইসলামপুর থানার পুলিশ রোগীর স্বামী ও ছেলেকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

ইসলামপুর হাসপাতাল সুপার নারায়ণ মিদ্যা জানান,বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখ জনক। এবিষয়ে পুলিশ ও প্রশাসনের কাছে জানানো হয়েছে। তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছে। পুলিশ সুপার শচীন মাক্কার জানান, একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে হাসপাতাল কতৃপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে। এখন থেকে এ ধরণের ঘটনার নিয়ন্ত্রণে হাসপাতালে নিরাপত্তার দায়িত্বে একটি স্থায়ী ভাবে পুলিশ ক্যাম্প বসানো হয়েছে। সেখানে দুজন পুলিশ কর্মী থাকবেন।

ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের ইসলামপুর শাখার সভাপতি ডাঃ হাসনাইন সরকার এবং সম্পাদক ডাঃ সায়ন্তন কুন্ডু জানান,অকারণে এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে এই চিকিৎসক নিগ্রহের তারা তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছেন।এ নিয়ে হাসপাতালে তিন মাসের মধ্যে দুটি চিকিৎসক নিগ্রহের ঘটনা ঘটলো।এবিষয়ে কড়া পদক্ষেপ না নেওয়া হলে তারাও ভবিষ্যতে কড়া পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে।

সম্প্রতি, ইসলামপুরের মাটিকুন্ডার বাসিন্দা এক মহিলা পেটে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। এদিন তার পরিবারের লোকজন চিকিৎসকের সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন। আচমকা তাঁরা চিকিৎসক এবং নার্সদের মারধর শুরু করেন। ভাঙচুরেরও চেষ্টা করা হয়। ঘটনার জেরে হাসপাতালে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সুপার ড: সঞ্জয় মন্ডল ঘটনার কথা স্বীকার করে জানান, থানায় অভিযোগ দায়ের করা হবে।

এই বিষয়ে চিকিৎসকদের দুটি সংগঠনের তরফে জোরদার আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। ইসলামপুর থানার পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। কয়েক মাস আগে এই ধরণের একাধিক ঘটনা ইসলামপুর হাসপাতালে ঘটেছিল। স্বভাবতই এদিনকার ঘটনায় চিকিৎসক মহল কড়া অবস্থান নিলে স্বাস্থ্য পরিষেবা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে বলে আশঙ্কা করছে ওয়াকিবহাল মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here