ছেলেধরা আতঙ্ক কোনভাবেই আটকানো যাচ্ছে না, মানসিক ভারসাম্যহীনকে আক্রমণ

0
84

সুভাষ মণ্ডল, কোচবিহার : ছেলে ধরা সন্দেহে ফের মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবককে মারধরের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল। মঙ্গলবার রাতে  দিনহাটা এক ব্লকের বড় আটিয়াবাড়ীর বড়াইবাড়ি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।  জানা গেছে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে থাকলে হঠাতই স্থানীয়রা তাকে ছেলে ধরা সন্দেহে আটকে মারধর করে।

এলাকার বাসিন্দাদের হাতে মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবককে মারধরের ঘটনার খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ সেখানে ছুটে যায় এবং ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। ছেলেধরা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন ওই যুবককে মারধরের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ছেলে ধরা সন্দেহে এভাবে আক্রমণের ঘটনা বেড়ে চলায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দারাও।

উল্লেখ্য দিন কয়েক আগে দিনহাটা পুটিমারী চেকপোস্ট এলাকায় ছেলেধরা সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক মারধর করা হয়। খবর পেয়ে পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। তার বাড়ি জলপাইগুড়ি জেলার বানারহাট এলাকায় বলে পুলিশ সূত্রে জানা যায়। এই ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করে। তার আগে সপ্তাহ দুয়েক আগে দিনহাটা গোপালনগর এলাকায় স্থানীয় হাই স্কুল ছুটির পর পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রকে জোরপূর্বক বাইকে  তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে দুই যুবক।

ওই স্কুলছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন বেরিয়ে এলে ওই দুই যুবক তৎক্ষণাৎ পালিয়ে যায়। এছাড়াও দিনহাটা বউবাজার এলাকাতেও অনুরূপ একটি ঘটনা ঘটে। সেখানেও এক মহিলাকে ছেলে ধরা সন্দেহে আটক করে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। প্রতি ক্ষেত্রেই মানসিক ভারসাম্যহীন উপর আক্রমণের ঘটনা ঘটছে বলেও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

এভাবে ছেলে ধরা সন্দেহে মারধরের ঘটনা ক্রমেই বেড়ে চলায় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকেও ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রচার শুরু হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে গুজবে কান না দেওয়ার জন্য এবং এ ধরনের অচেনা কোনো ব্যক্তিকে এলাকায় দেখা মিললে তাদের মারধর না করে আইন নিজের হাতে না নিয়ে তৎক্ষণাৎ পুলিশকে খবর দেওয়ার জন্য আবেদন জানানো হয়েছে। পুলিশের ওই আবেদনে আরো বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে দিনহাটা থানার আইসি সঞ্জয় দত্ত বলেন এদিন রাতে বড় আটিয়াবাড়ীর বড়াইবাড়ি এলাকায় মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবককে এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে দেখে স্থানীয়রা। স্থানীয়রা তাকে আটকে রাখলে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। পাশাপাশি পুলিশ ঘটনা খতিয়ে দেখছে বলেও জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here