এবার বাজারে মাতাতে আসছে জয়হিন্দ জয়বাংলা রাখী

0
85

পূর্ব বর্ধমান : পূর্ব বর্ধমানের কালনায় বিভিন্ন রাখি তৈরির সংস্থা থাকলেও এর মধ্যে আলাদা ভাবে উল্লেখ করা যায় কালনা রাখি নামক সংস্থাটি। যার আদতে মাননীয় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথের উদ্যোগে রাখির ক্লাস্টার হিসেবে চালু হয় ।এই ক্লাস্টারেরই প্রশিক্ষণ প্রার্প্ত কর্মীদের হাতে তৈরী জয় হিন্দ জয় বাংলা রাখি আজ ছড়িয়ে পড়েছে সারা বাংলায়। কালনার শহরের একটি রাখি তৈরির ক্লাস্টারেই তৈরি হচ্ছে সেই নিল সাদা রঙের মাঝে বাংলায় লেখা ‘জয় হিন্দ জয় বাংলা’। সরকারি সহায়তায় কালনা শহরে রাখি তৈরীর একটি ক্লাসটার তৈরি হয়েছে।

হাতে কলমে কাজ শিখে বহু মহিলা আজ রাখি শিল্পে যুক্ত থেকে সংসারে সকলের মুখে হাসি ফুটিয়েছেন ইতি মধ্যে যা বাজারেও ছেয়ে গিয়েছে। এখান কার কর্মীরা জানালেন, মাননীয় মন্ত্রীর এই সহযোগিতা আমরা সকলেই খুব উপকৃত আগামী দিনে মাননীয় মন্ত্রী আমাদের পাশে থাকবেন এই আশা আমরা রাখছি। আর বর্তমানে যা রাজ্য সরকারের সংহতি রক্ষার শ্লোগানও।তাই রাজ্য সরকারের যুব কল্যাণ দফতরের উদ্যোগে বরাত পেয়েছে ওই সংস্থা।

রাখি উৎসবের দিনেই সরকারি উদ্যোগে নানা জায়গায় সেই জয় হিন্দ জয় বাংলা রাখি পরিয়েই সংহতি দিবস পালন করা হবে বলে জানা গিয়েছে। রাস্তার মোড়ে জন প্রতিনিধি থেকে প্রশাসনিক দফতরের কর্মীদের মধ্যে পালন হবে সেই সংহতি দিবস। সম্প্রতি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে এই জয় হিন্দ জয় বাংলা শ্লোগান প্রচলন করেন।তাই রাখি বন্ধনের দিন এই শ্লোগানেই রাজ্যের সংহতি বজায় রাখতে চাইছে রাজ্য সরকার।

সেই লক্ষেই এখন কর্মব্যস্ত কালনার রাখি শিল্পীরা। প্রাথমিক ভাবেই প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ রাখির তৈরির বরাত পেয়েছে তাঁরা। আরও কয়েক লক্ষ মিলিয়ে প্রায় পাঁচ লক্ষ-এর বেশি রাখি রাজ্য যুব কল্যাণ দফতরে পাঠাবে তাঁরা। কালনা রাখি নামে ওই রাখি ক্লাস্টারের সভাপতি তপন ভৌমিক জানান, শুধু সরকারের জন্যই নয় বাইরের বাজারের জন্যও এই রাখি তৈরি করা হয়েছে।

তার জন্য প্রায় তিনশো কর্মী কাজে লেগে পড়েছেন। জানাগিয়েছে, প্রতি বছরই রাখি বন্ধনের দিন রাজ্য সরকারের তরফে সংহতি দিবস পালন করা হয়। কালনার এই ক্লাস্টার সহ নানা রাজ্যের আরও কিছু সংস্থা সেই ররাত পায়। এই বছরও সেই বরাত দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ বলেন, “আমরা রাজ্য সরকারের উদ্যোগে রাখি শিল্পীদের জন্য এই ক্লাস্টার তৈরি করেছি। তারাই রাখি বানায়। প্রতিবছরই নানা বার্তা থাকে, এবারও বার্তা রয়েছে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here