শহরের পরিত্যক্ত স্কুল এবার ভাঙলো ঝড়ে

0
121

ইসলামপুর: শুধু পরিত্যক্তই নয়,দীর্ঘ এক দশকের বেশি সময় ধরে ভাঙাচোরা এবং স‍্যাতস‍্যাতে ছিল যে স্কুল। আচমকা ঝড়-বৃষ্টিতে গাছের গুড়ি পড়ে হুড়মুড়িয়ে ভেঙ্গে পড়ল স্কুলের একাংশ। এমনই ঘটনা ঘটলো ইসলামপুর ব্লকের রামকৃষ্ণ পল্লী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এলাকার বাসিন্দা তথা অভিভাবকদের একাংশের অভিযোগ, দীর্ঘ এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বিদ্যালয়টি পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে। একদিকে মেরামত যেমন হয় না তেমনি পরিকাঠামোর উন্নয়নের বিষয়ে কর্তৃপক্ষের কোনো হেলদোল নেই।

ফি বছর বর্ষায় প্রতিটি ক্লাস রুম জলে ডুবে যায়।ছাদ ফুঁড়ে জল পড়ে পড়ুয়াদের শরীরে। এতে একদিকে যেমন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে পঠন-পাঠন তেমনি সমস্যার জেরে মাশুল গুনতে হয় বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। শুধু তাই নয়, ওই পরিবেশে রান্না করতে গিয়ে সমস্যার মুখোমুখি রাধুনীরা।যেকোনও মুহূর্তে শ্রেণী কক্ষ ভেঙে ঘটতে পারে বড় দুর্ঘটনা। বিষয়টি বারবার সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানিয়েও আদৌ সমস্যার সমাধান না হওয়ায় ক্ষোভে ফুঁসছেন এলাকার বাসিন্দাদের পাশাপাশি ওই বিদ্যালয়ের অভিভাবকরা।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অঙ্গন দেবনাথ জানান, গাছটি পড়ে বিদ্যালয়ের একাংশ ভেঙে যাওয়ার পর বিষয়টি জানানো হয়েছে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের কাছে। তবে এর আগেও সামগ্রিক বিষয় তিনি জানিয়েছিলেন পরিকাঠামো উন্নয়নের দাবিতে। বিদ্যালয় পরিদর্শক শুভঙ্কর নন্দী জানান, এই ঘটনা শুনে তিনি বিদ্যালয়টি পরিদর্শন করে  এসেছেন। সেটি মেরামতের বিষয়টির পাশাপাশি এর আগেও শ্রেণিকক্ষ নির্মাণের জন্য উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের কাছে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে শহর কিংবা গ্রামের একাধিক বিদ্যালয়ে শ্রেণীকক্ষ নির্মাণ কিংবা কোথাও দ্বিতল ভবন গড়ে উঠলেও শহরের বুকে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কেন এক দশকের বেশি সময় ধরে এ ধরনের চিত্র তা পরিষ্কার নয় কারোর কাছেই। কেন বিদ্যালয়টির পরিকাঠামো তৈরীর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি দীর্ঘ দিন এবং কেনই বা ঝড় বৃষ্টির দিনে ঝুঁকি নিয়ে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বিদ্যালয় পরিচালনা করতে হচ্ছে এবং সেই ঝুঁকির মধ্যেই পড়ুয়াদের পড়াশুনা করতে হচ্ছে তা নিয়ে রীতিমতন প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহলে। অবিলম্বে বিদ্যালয়টির পরিকাঠামোর মানোন্নয়নের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here