ঝোড়া থেকে ক্যারেন্ট দিয়ে মাছ ধরা আটকালো এক পরিবেশ প্রেমী সংস্থা

0
201

মালবাজারঃ বর্ষা এসে গেছে। ডুয়ার্সের নদী নালা ঝোড়াতে জল আসতে শুরু করেছে। এছাড়া এমন কিছু ঝোড়া আছে যাতে সারা বছর কমবেশি জল থাকে। এইসব ঝোড়াগুলিতে গিতু, চ্যাং, মাগুর ইত্যাদি মাছ পাওয়া যায়। এইসব নদীয়ালি মাছের বাজারে ভালো। কিছু মৎস ব্যবসায়ী আছে যারা এই সব মাছ ধরে বাজারে বিক্রি করে। বর্তমান সময়ে বাজারে মাছের যথেষ্ট চাহিদা ভালো থাকায় কিছু  অসাধু ব্যবসায়ী নদীতে জাল ছিপ বাদ দিয়ে দ্রুত বেশি মাছ ধরার জন্য ইলেকট্রিক শক অথবা কীটনাশক ব্যবহার করে মাছ ধরে।

এটা শুধু অবৈঞ্জানিক নয়, নদীর জীব বৈচিত্র্য নষ্ট করে। কিন্তু, এভাবে অনেক জায়গায় মাছ ধরা চলে। সোমবার সকালে ওদলাবাড়ির কাছে মানাবাড়ি চাবাগানে আন্দাঝোড়াতে এই রকম ভাবে ইনর্ভাট্রারের সাহাজ্যে ইলেকট্রিক শক দিয়ে মাছ ধরছিল কিছু মানুষ। খবর পেয়ে ওদলাবাড়ির পরিবেশ প্রেমী সংস্থা ন্যাসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের আটকে দেয়।

ন্যাসের কর্মী নফসর আলি বলেন, এভাবে মাছ ধরা অবৈঞ্জানিক। এতে নদীতে থাকা প্রানীকূল মারা যায়। এই মাছ খাওয়া ক্ষতিকর। কিন্তু, আইনগত ভাবে কোন ব্যবস্থা নেওয়া যায় না বলে এই প্রবনতা দিন দিন বাড়ছে। আজ আমরা ওদের বোঝালাম। ওরা প্রতিশ্রুতি দিয়ে যে এভাবে মাছ ধরবে না। ভবিষ্যতে ধরলে ওদের ব্যাটারি ও সরঞ্জাম আটকে রাখব বলেছি। এনিয়ে বিধিনিষেধ আরোপ করা উচিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here