ডুয়ার্সে ঘনীভুত হচ্ছে কাটমানি আন্দোলন, হতে পারে যেকোনো বহিঃপ্রকাশ

0
145
মালবাজারঃ কাটমানি ফেরত নিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মন্তব্য করার পর থেকে রাজ্য জুরে সোরগোল শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী নচিকেতা চক্রবর্তী গান লিখে ফেলেছেন। সাধারণ মানুষ মুখ খুলতে শুরু করে দিয়েছে। রাজ্যের অন্যান্য এলাকার মতো এনিয়ে ডুয়ার্সের বিভিন্ন এলাকায় এনিয়ে জোয়ার উঠতে শুরু হয়েছে।
ডুয়ার্সের চাবাগান অধ্যুষিত এলাকায় একাধিক গ্রাম পঞ্চায়েত রয়েছে। এই সব গ্রাম পঞ্চায়েত গুলিতে গত কয়েক বছর ধরে ১০০ দিনের প্রকল্পে কাজ হয়ে আসছে। চাবাগান এলাকায় মানুষ যারা চাবাগানের কর্মরত তাদের নামেই তৈরি হয় জবকার্ড। সেই জবকার্ডধারী মানুষ ১০০ দিনের কাজের তালিকায় থাকে। আবার চাবাগানের বেকার যুবক যুবতী দেরও এই কার্ড থাকে। যারা চাবাগানের শ্রমিক তাদের নামে বরাদ্দ মজুরির যখন ব্যাংকে এসে জমা হয় তখন সুপারভাইজাররা সেই টাকা বিভিন্ন কৌশলে তুলে নিয়ে খানিকটা উপভোক্তাকে দেয় আর খানিকটা নিজে নেয়। এই ঘটনা ডুয়ার্সের পঞ্চায়েত গুলিতে কান পাতলেই শোনা যায়।
এতদিন এনিয়ে কেউ উচ্চবাচ্য করেনি। এখন মুখ খুলতে শুরু করে দিয়েছে। এই মুখ খুলতেই কয়েকদিন আগে রানিচেরা চাবাগানের বালাবাড়ি ডিভিশনের চৈতী লাইন শ্রমিক বস্তিতে উপভোক্তাদের সাথে সুপারভাইজারের ঝামেলা ও হাতাহাতি হয়। আবার ওই চাবাগানের হাটখোলা লাইন শ্রমিক বস্তির এক মহিলা এই কাটমানি নেওয়ার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে তাকে হুমকির মুখে পড়তে হয়। এই রকম বিক্ষিপ্ত ভাবে বহু চাবাগান ও গ্রামাঞ্চলে ঝামেলা শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই অনেকে আবার টোল ফ্রি নম্বরে অভিযোগ করতে শুরু করেছেন। স্থানীয় রাজনৈতিক মহলের ধারণা যেকোনো সময় এনিয়ে বড় রকমের ঝামেলা হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here