চিকিৎসক নিগ্রহের প্রতিবাদে ডাক্তারদের কর্মবিরতি ও কালো ব্যাজ নিয়ে মিছিল রায়গঞ্জে

0
760

দেবলীনা ব্যানার্জী, রায়গঞ্জ : নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সোমবার রাতে জুনিয়র ডাক্তারকে মারধরের প্রতিবাদে রাজ্য জুড়ে সব সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের বহির্বিভাগে পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়ায় রাজ্যের চিকিৎসা পরিষেবা মারাত্মক ভাবে ধাক্কা পেয়েছে। অন্যান্য জেলাগুলির সাথে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জেও বুধবার সমস্ত সরকারি – বেসরকারি আউটডোর ও প্রাইভেট পরিষেবা বন্ধ ছিল। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন রোগীরা। নক্কারজনক এই ঘটনার প্রতিবাদে রায়গঞ্জের চিকিৎসকদের একাংশ এদিন কর্মবিরতি পালন করেন। এছাড়া ডাক্তারদের আহবানে বুকে কালো ব্যাজ পরে প্রতিবাদ মিছিলে পা মেলান রায়গঞ্জের সর্বস্তরের মানুষেরা।

বিকেল পাঁচটায় রায়গঞ্জের হাসপাতাল থেকে একটি বিশাল মিছিল শহর পরিক্রমা করে শিলিগুড়ি মোড়ে এসে থামে। শিক্ষক, অধ্যাপক, উকিল, ব্যবসায়ী,  সমাজসেবী সহ সব স্তরের মানুষেরা এই প্রতিবাদ মিছিলে অংশ নেন। মিছিলের পুরোভাগে ছিলেন বিশিষ্ট চিকিৎসক জয়ন্ত ভট্টাচার্য, দেবব্রত রায়, হীরক ঝা, শান্তনু দাস,সুদেব সাহা, সঞ্জয় ঘোষ, কে সি ব্যানার্জি, শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ধীমান পাল, নীলাঞ্জন মুখার্জি, অসিত ব্যানার্জি সহ রায়গঞ্জের অধিকাংশ চিকিৎসকেরা।

রায়গঞ্জ ইউনিভার্সিটি কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ দিলীপ দে সরকার, মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অতনু বন্ধু লাহিড়ী, বিশিষ্ট সমাজসেবী কৌশিক ভট্টাচার্য, পবিত্র চন্দ সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা এই পদযাত্রায় সামিল হয়েছিলেন। জয়ন্তবাবু বলেন, ‘এ রাজ্যে ক্রমাগত ডাক্তারদের ওপর আক্রমণ চলছে, অন্য রাজ্যেও চলছে। উত্তরপ্রদেশ, বিহার, মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্রে ডাক্তাররা মার খেয়ে মারাও যাচ্ছেন।আজ পশ্চিমবঙ্গের সর্বত্র ডাক্তাররা কর্মবিরতি করছেন। এটা প্রতীকী নয়, বাস্তব ধর্মঘট।’ রোগীদের অসুবিধে হচ্ছে বহু মুমূর্ষু রোগীকে ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে তাই এই ধর্মঘট অনির্দিষ্টকাল চালিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয় এটা মানছেন ডাক্তারদের অনেকেই।

কিন্তু সর্বক্ষণ নিরাপত্তাহীনতায় ডাক্তাররাই বা কিভাবে ভালো চিকিৎসায় মনোনিবেশ করবেন! এ রাজ্যেই দুবছর আগে চিকিৎসকের গায়ে বিষ্ঠা ঢেলে দেওয়ার মত ঘটনা ঘটে গেছে। তাই স্বাস্থ্য পরিষেবাকে উন্নত করতে হলে ডাক্তার নার্সদের নিরাপত্তা সর্বাগ্রে প্রয়োজন। নাহলে ভবিষ্যতে ভয়ংকর সময় অপেক্ষা করে আছে বলে জানালেন চিকিৎসকদের একাংশ। অনেকেই আক্ষেপ করেছেন যে এই চিকিৎসক নিগ্রহের ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী বা প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কেউ ডাক্তারদের সাথে এখনো পর্যন্ত কথা বলেন নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here