নতুনের দিশায় অনির্বান! তরুণ প্রজন্মের স্বপ্নকে বাঁধতে চলেছেন তিনি

0
221

ইসলামপুর : আর প্রতিভার মৃত্যু নয়; এবার ফিরছে অনির্বাণ। হ্যাঁ তেমনটাই বুঝি হতে চলেছে উত্তরের পাহাড়, জল, জঙ্গলের এক অনন্য প্রেক্ষাপট ঘিরে। একসময় ব্যান্ডের সুরে দাপিয়ে বেড়ানো অনির্বাণ এবার ফিরছে অন্য ভাবনায়। উত্তরের শিল্পীদের কন্ঠস্বরকে আরো দূরে বহু মানুষের কাছে পৌঁছোতে এক সুন্দর প্রয়াসের পর্ব নিয়ে নামলেন অনির্বাণ। হ্যা অনির্বান সেনগুপ্ত। নতুন প্রতিভা অন্বেষণে সম্প্রতি তিনি উত্তরের তরাই, ডুয়ার্স সহ বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

উদীয়মান নতুন শিল্পী ও কলাকুশলীদের সঙ্গে দেখা করছেন তাদের দিশা দেখাচ্ছেন কিভাবে একজন ভাল শিল্পী হওয়া যায়। শিল্পীর শিল্পকে শুধু কণ্ঠস্বরের মধ্যে আটকে রাখলে চলবে না,বরং সেই কণ্ঠস্বর পৌঁছে দিতে হবে বহুদূরের ঠিকানায়। তবে সার্থক এই পথ চলা। মূলত এ বিষয়টিকে সামনে রেখেই সম্প্রতি গীতিকার অনির্বাণ সেনগুপ্ত উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জনপদের মতন এসেছিলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুর। এখানে এসে বেশ কিছু তরুণ প্রতিভার গান শুনে তিনি রীতিমতো মুগ্ধ হয়ে যান।

কিন্তু সেই শিল্পীরা স্থানীয়ভাবে সীমাবদ্ধ কেউ বা এদিক-ওদিক বিভিন্ন অনুষ্ঠান করে বেড়াচ্ছেন। কিন্তু যেভাবে এর প্রসার হওয়া দরকার সেভাবে হয়নি। যেন প্রতিভা থেমে আছে কোন এক জায়গাতেই। তাই এই প্রতিভাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে নতুন ভাবনায় ভাবিত করে, তালিম দিয়ে তিনি পৌঁছাতে চান সমস্ত শ্রোতাদের দরবারে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন প্রতিভাদের নিয়ে কর্মশালা করেছেন। নিজে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছিলেন এই সঙ্গীতের দুনিয়ায়। এবার পরবর্তী প্রজন্মকে নিয়ে প্রতিভা অন্বেষণে ভাবনার পালা।

দায়বদ্ধতাও বটে। তাই প্রতিভা অন্বেষণে তিনি ঘুরে বেড়াচ্ছেন কখনো গ্রামের মেঠো পথ আবার কখনোবা শহরের রাজপথ দিয়ে। তার সমস্ত থেমে থাকা স্বপ্নরা যাতে এই তরুণ তুর্কি তথা উদীয়মান শিল্পীদের মাধ্যমে ডানা মেলতে পারে এবং প্রতিফলিত হতে পারে সেই চেষ্টাই তিনি করে যাচ্ছেন। সেখানেই বুঝি তার জন্মজন্মান্তরের সার্থকতা কিংবা তৃপ্তি। মুখোমুখি বসে একান্ত আলাপচারিতায় উঠে এলো তার কাছ থেকে এমনই সব তথ্য।

এখন থেকে প্রতি মাসে মাসে তিনি উত্তরের বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে এলাকার শিল্পী ও কলাকুশলীদের নিয়ে আড্ডায় মেতে উঠতে চান এবং সেখান থেকেই তুলে আনবেন প্রকৃত শিল্পীদের। প্রকৃত প্রতিভাদের এভাবেই চলবে অন্বেষণ। তার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে এবং যতটুকু সুযোগ তার হাতের মুঠোয় আছে সে সুযোগ আর নিজের জন্য নয়। বরং তা বিলি করবেন এই প্রতিভাদের জন্য। এমন ভাবনা, স্বপ্ন এবং অঙ্গীকার নিয়েই পাহাড় থেকে সমতল ছুটে বেড়াচ্ছেন অনির্বাণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here