নির্জলা দিনহাটা মহকুমা হাসপাতাল

0
118
সুমন মন্ডল, কোচবিহারঃ নির্জলা দিনহাটা মহকুমা হাসপাতাল। টানা দুইদিন ধরে জল না থাকায় বন্ধ হয়ে পড়েছে হাসপাতালে সব ধরনের অস্ত্রপ্রচার। একটানা দুদিন ধরে  জল না থাকার ফলে সমস্যায় পড়তে হয় হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের পাশাপাশি চিকিৎসক ও নার্সদের। জল না থাকার ফলে বাইরে থেকে জল কিনে এনে রোগীদের ঔষধ খাওয়ানো থেকে শুরু করে প্রয়োজনীয় কাজগুলো করতে হচ্ছে বলে আত্মীয় পরিজনেরা অনেকে জানান। এভাবে জলের সমস্যার ফলে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে রোগীদের পাশাপাশি আত্মীয়-পরিজন মধ্যে। কেউ বাইরে থেকে কিনে কেউ বা আবার দূর থেকে টেনে নিয়ে এসে  সমস্যা কিছুটা মেটানোর চেষ্টা করছে বলে অনেকে জানান।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে প্রায়ই হাসপাতালে জলের সমস্যা দেখা দেয়। মঙ্গলবার বিকাল থেকে পানীয় জলের পরিষেবা সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে পড়েছে। জনসাস্থ কারিগরি দপ্তর এর ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সংশ্লিষ্ট দফতর সূত্রে জানা গেছে সমস্যা সমাধানে কর্মীরা কাজ করে চলছে। দ্রুত জলের ব্যবস্থা করার জন্য কর্মীরা কাজ করছে বলেও দপ্তর সূত্রে জানা গেছে।বর্তমানে এই হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগে দুই শতাধিকের ওপরে রোগী ভর্তি রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভিন্ন রোগী ভর্তি হয়েছে ১৪৫ জন। ব্যাপকসংখ্যক রোগী হাসপাতালে ভর্তি থাকার পাশাপাশি হাসপাতালে কোয়ার্টার গুলিতেও কর্মীদের একটি বিরাট অংশ থাকায় ওভারি সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে।
দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ল্যাবরেটরী বিভাগের সারদা প্রসন্ন ঘোষ বলেন জল না থাকার ফলে তারা কাজ করতে পারছেন না। কোন কিছু টেস্ট করতে কিংবা রোগীদের রক্ত নেওয়ার পরই হাত ধোয়া থেকে শুরু করে কোন ফানেল ধুতে গেল জল না থাকায় চরম বিপদের মুখে পড়েছেন তারা। হাসপাতালের সহকারী সুপার পৃথা পাল বলেন গত কয়েকদিন ধরেই জলের কম বেশি সমস্যা চলছিল। তার উপর সোমবার থেকে সম্পূর্ণ জলের পরিষেবা বন্ধ হয়ে পড়ায় কোয়াটার  সব রকম কাজ তাদের বন্ধ হয়ে গেছে। বাইরে থেকে জল কিনে চার তলায় উপরে অনেক কষ্টে উঠাতে হচ্ছে।
অবিলম্বে সমস্যা সমাধান না হলে ভয়ানক পরিস্থিতি ধারণ করবে বলেও তিনি জানান। বিষয়টি নিয়ে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে সুপার রঞ্জিত মন্ডল বলেন সোমবার থেকে হাসপাতালে কোন বিভাগ এমনকি কোয়াটার গুলিতে কোন জল না থাকায় রোগীদের পাশাপাশি সমস্যায় পড়তে হচ্ছে কর্মীদেরও। পাশাপাশি জলের সমস্যার জন্য হাসপাতালে অপারেশন বন্ধ হয়ে রয়েছে বলে তিনি জানান। সমস্যা সমাধানে জনসাস্থ কারিগরি দপ্তরকে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য বলা হয়েছে। জনসাস্থ কারিগরি দফতরের  এসিস্টেন ইঞ্জিনিয়ার নিত্যহরি বসাক বলেন সমস্যা দ্রুত সমাধানে কর্মীরা সেখানে কাজ করছে।  আগামীতে যাতে এই সমস্যা না হয় তার  সমাধানে স্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা  হবে। এক টানা দু’দিন ধরে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে কোনো বিভাগেই জল না থাকার ফলে হাসপাতলে সব রকম অপারেশন যেমন স্থগিত রাখা হয়েছে তেমনি ল্যাবরেটরীতে কাজকর্ম থমকে পড়েছে।