শিলিগুড়িতে উদ্ধার প্রায় ২৫ কেজি সোনা, ধৃত ছ’জনের জেল হেফাজত

0
244

শ্রেয়সী কুণ্ডু, শিলিগুড়ি: কেন্দ্রীয় রাজস্ব গোয়েন্দা দপ্তর বিশেষ অভিযান চালিয়ে শিলিগুড়ি থেকে ২৪ কেজি ১৫০ গ্রাম সোনা উদ্ধার করেছে। যার আনুমানিক বাজার মূল্য আট কোটি টাকা। এই ঘটনায় মোট ছ’জনকে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্তারা গ্রেপ্তার করেছেন। আজ, মঙ্গলবার ধৃতদের শিলিগুড়ি মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদের প্রত্যেককেই ১৪ দিনের জেল হেফাজতে পাঠিয়েছে। কেন্দ্রীয় রাজস্ব গোয়েন্দা দপ্তরের আইনজীবী ত্রিদিব সাহা বলেন, মায়ানমার থেকে সোনা আনা হয়েছিল। ধৃতরা প্রত্যেকেই ক্যারিয়ার হিসেবে কাজ করছিল। তারা বিভিন্ন রুট ধরে বাসে চেপে শিলিগুড়িতে আসে। এসব এখান থেকে কলকাতায় পাচার করা হচ্ছিল। কেন্দ্রীয় রাজস্ব গোয়েন্দা দপ্তরের শিলিগুড়ির আঞ্চলিক বিভাগের এটি বড় সাফল্য বলা যেতে পারে।

দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, মোট ৪৫টি সোনার পিস উদ্ধার হয়েছে। এর মধ্যে এক কেজি ওজনের ছিল ২০টি সোনার বার মিলেছে। অন্যদিকে ১৬৬ গ্রাম ওজনের মোট ২৫টি বিস্কুট এদের ধৃতদের হেফাজত থেকে পাওয়া গিয়েছে। এরা মণিপুর থেকে কোচবিহার হয়ে শিলিগুড়িতে বাসে এসেছিল। ধৃতরা হল মহম্মদ নুমান, মহম্মদ লুকমান, হাপিস মিসবাউদ্দিন, মহম্মদ জামিল আহমেদ, মহম্মদ দাউদ আখতার এবং মহম্মদ এম ওয়াসিম খান। প্রত্যেকেরই বাড়ি মণিপুরের ইম্ফলের বিভিন্ন জায়গায়। এরা মূলত সোনা বহন করে পাচারকারীদের হাতে তুলে দেয়। এরা ইনার ওয়্যারে বিশেষ ধরনের পকেট বানিয়ে এসব পাচার করার চেষ্ট করছিল। এরা কলকাতায় কার হতে তুলে দিতে যাচ্ছিল তা তদন্ত করে দেখছে কেন্দ্রীয় রাজস্ব গোয়েন্দা দপ্তরের কর্তারা।