নববর্ষের আগে শিলিগুড়ির বাজারে জাবেদা খাতার চাহিদা তুঙ্গে

0
1032
শ্রেয়সী কুণ্ডু, শিলিগুড়ি: আগামী সোমবার ১৫ এপ্রিল বাংলা নববর্ষ। আম বাঙালি এই নববর্ষের দিন লক্ষ্মী গণেশ পুজো করে দোকানে নতুন খাতার সূচনা করেন। তাই এখন নতুন খাতা তৈরির দোকানগুলিতে শ্রমিকরা দিন-রাত জেগে কাজ করছেন। শিলিগুড়ি শহরের মহাস্তান এলাকায় জাবেদা খাতা তৈরির এমন দোকান বেশ কয়েকটি রয়েছে। ওই দোকানদারেরা তাঁদের শ্রমিকদের দিয়ে এখন খাতা বাইন্ডিংয়ের কাজ করছেন। দোকানে থরে থরে সাজিয়ে রাখা হয়েছে বিভিন্ন সাইজের লাল মলাটের ওসব জাবেদা খাতা। এর দাম শুরু হচ্ছে ৫০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা পর্যন্ত। প্রয়োজনে মোটা কিংবা পাতলা চাহিদা অনুযায়ী জাবেদা খাতা অর্ডার নিচ্ছেন ব্যাসায়ীরা।
মহাবীরস্তানের এক জাবেদা খাতা দোকানের মালিক আবু হাসেম মিঁয়া বলেন, বিভিন্ন আয়তনের জাবেদা খাতা তৈরি করার কাজ চলছে। কারখানা থেকে ওসব হলুদ, সাদা  গোলাপি, গেরুয়া রঙিন কাগজ নির্দিষ্ট আয়তনের কেটে এনে এখানে বসে সেসসব বাইন্ডিং করার কাজ চলছে। শ্রমিকরা দিন-রাত জেগে কাজ করছেন। ভোটের হাওয়াতে ব্যবসায় বিন্দুমাত্র প্রভাব পড়েনি বলে জানিয়েছে তাঁরা। কারণ ভোটের কাজে ব্যস্ত থাকলেও নতুন বছরের হালখাতায় আম বাঙালির কখনোই ভাটা পড়তে পারে না। তবে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, প্রতি বছরের মতো এবারও খাতার দাম তিন থেকে চার শতাংশ করে বাড়ছে। কারণ কাগজ, আঠা, মলাট সহ অন্যান্য সামগ্রী এবং শ্রমিকদের পারিশ্রমিক বৃদ্ধি করার জন্য দাম বাড়াতে হয়েছে। উত্তরবঙ্গের বিশেষ করে জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার এবং দুই দিনাজপুরের ব্যবসায়ীরা শিলিগুড়ির মার্কেট থেকেই জাবেদা খাতা কিনে নিয়ে যান। তাই এখানকার মহাবীরস্তান মার্কেটে সকাল থেকেই ভিড় জমছে জাবেদা খাতা কেনার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here