বড় দিনের আগে বড় সাফল্য : বাজেয়াপ্ত হাসিস ও এলএসডি ড্রাগ

0
774

কলকাতা : ২ কেজি ৪৫০ গ্রাম হাসিস ও এলএসডি ড্রাগ উদ্ধার করল নারকোটিক কন্ট্রোল বিউরো। সামনেই বড় দিন ও নিউ ইয়ার। এই উপলক্ষে প্রত্যেক বছরেই সক্রিয় হয় মাদক পাচার চক্রগুলি। ওতপেতে থাকে প্রশাসন। সেইমত গতকাল সিআইডির সঙ্গে অভিযান চালিয়ে নারকোটিক কন্ট্রোল বিউরো ডিজে নিখিল, রবার্ট ও হেনরি নামে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। নারকোটিক কন্ট্রোল বিউরো সূত্রে জানা গেছে হেনরি লরেন্স মান্না ও ডিজে নিখিল এই চক্রের মুল মাথা। রবার্ট ছিল ক্যারিয়ার মাত্র। যে মাদক উদ্ধার হয়েছে তার মুল্য ১৫ লক্ষ টাকা । কোন এলাকায় এগুলি ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছিল তা জানতে ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে নারকোটিক কন্ট্রোল বিউরো। মাদক দ্রব্যগুলি চিহ্নিতকরনের জন্য ল্যাবে পাঠানো হচ্ছে।

নারকোটিক বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নিষিদ্ধ মাদকের বাজার মুল্য ১৫লক্ষ টাকা। এই কনসাইনমেন্ট কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল কোথা থেকে বা নিয়ে আসা হচ্ছিল সেই সম্পর্ক ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ধৃতরা বড় কোন আন্তর্জাতিক মাদক পাচার চক্রের সঙ্গে জড়িত এবিষয়ে প্রায় নিশ্চিত নারকোটিক বিভাগ।

উল্লেখ্য, নিউইয়ারের আগে এই সমসয়টা কলকাতা প্রায় মাদক করিডর হয়ে ওঠে। এই সময় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ও ইদানিং কলকাতা শহরের বিভিন্ন ‘রেভ পার্টি’গুলিতে মাদকের প্রবল চাহিদা তৈরি হয়। সেই সুযোগকে কাজে লাগাতে সক্রিয় হয় মাদক পাচার চক্রগুলি। তাঁরা বিদেশ থেকে তুলনামুলক কম দামে মাদক এনে গোয়া ও কলকাতার বিভিন্ন পার্টিতে এই নিষিদ্ধ মাদক ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। সূত্র মারফত জানা গেছে, চলতি বছরে শুধুমাত্র কলকাতা বিমানবন্দর থেকে প্রায় ৮ কেজি কোকেন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে ২.৭৪ কেজি বাজেয়াপ্ত করেছে নারকোটিক বিভাগ এবং বাকিটা করেছে শুল্ক দফতর।