গান্ধী সংকল্পকে ঘিরে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষ

0
74

সুমন মন্ডল, কোচবিহারঃ গান্ধী সংকল্প যাত্রাকে ঘিরে তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষের ঘটনাকে ঘিরে এক ব্যক্তির  মৃত্যুতে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল।  কোচবিহার ২ নং ব্লকের এই ঘটনায়  রাজনৈতিক উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। গান্ধীজির জন্মের সার্ধ শতবর্ষ উপলক্ষ্যে গান্ধী সংযোগ যাত্রা শুরু হয়েছে কোচবিহার জেলা জুড়ে। ১৬ থেকে ২৫ শে অক্টোবর এই কর্মসূচী চলবে গোটা জেলা জুড়ে। এদিন জেলার বানেশ্বর, থানেশ্বর, ধাংধিংগুড়ি, পুন্ডিবাড়ি, পাতলাখাওয়া নাটাবাড়ি সহ একাধিক জায়গায় এই কর্মসূচী সংগঠিত হয়।

পাতলাখাওয়া এলাকায় এই কর্মসূচিকে ঘিরে তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সেই ঘটনায় আহত হয় দুপক্ষের বেশ কয়েকজন কর্মী। ভাঙচুর চালানো হয় বেশ কয়েকটি বাইকেও। ঘটনায় তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে হামলারও অভিযোগ ওঠে। তৃণমূলের দাবী এই ঘটনায় বিজেপি কর্মীদের হাতে আক্রান্ত হয়ে জহিরুদ্দিন সরকার নামে তাঁদের এক কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। যদিও তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে অস্বীকার করেছে বিজেপি।

জেলা তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ অভিযোগ করে বলেন, গান্ধী সংকল্প যাত্রার নামে কোচবিহার ২ নং ব্লকজুড়ে তাণ্ডব চালিয়েছে বিজেপি কর্মীরা। এই আক্রমণে আক্রান্ত হয়ে দলের সক্রিয় কর্মী জহিরুদ্দিনের মৃত্যু হয়। পাতলাখাওয়া দলীয় কার্যালয়ে তাঁর উপর আক্রমণ করা হয়েছে। আহত অবস্থায় কোচবিহারের একটি বেসরকারি নাসিং হোমে নিয়ে এলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

আমরা এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।অন্যদিকে বিজেপির দাবী, সংকল্প যাত্রায় আক্রমণ চালিয়েছে তৃণমূল, বিজেপির সাথে কোন সংঘর্ষের ঘটনাই ঘটেনি। দলের কোচবিহার জেলা সভানেত্রী মালতি রাভা বলেন, আমরা খোঁজ নিয়ে জেনেছি হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তৃণমূল এই স্বাভাবিক মৃত্যুকে অস্বাভাবিক করে তুলে রাজনৈতিক রং লাগাবার চেষ্টা করছে।